প্রাইমারী ভাইভা অভিজ্ঞতা- ২০১৯ ( আরজ আলী মাতবর সম্পর্কে বেশি প্রশ্ন)

ভাইভা অভিজ্ঞতা

Total Views: 728

বিষয়ঃ   দর্শন

প্রথমে দরজা ধাক্কা দেওয়ার পর দাড়িয়ে ভিতরে যাওয়ার অনুমতি নিলাম।
স্যারেরা অনুমতি দেওয়ায় একটু ভিতরে ঢুকে সালাম করলাম।
ডিসি স্যার ছিলেন না। তাই একটু সাহস বেশি হলো।
চেয়্যারের কাছে দাড়াতেই স্যার বসার অনুমতি দিলেন। আমি পুরো শিওর হওয়ার জন্য অনুমতি নিয়ে বসলাম।
প্রথম পরীক্ষকঃ তুমি কোন বিষয় পড়াশোনা করেছো?
আমিঃ দর্শন।
পরীক্ষক-১ঃ বলো তো আমাদের আশেপাশে একজন দার্শনিক আছেন, তার নাম কি?
আমিঃ আরজ আলী মাতবর
ডিপিও স্যারঃ কি নাম?
আমি ঃ আরজ আলী মাতবর।
পরীক্ষক ১ঃ আরজ আলী মাতবর প্রথম জীবনে কি করতেন?
আমিঃ কৃষি কাজ করতেন। পরে আমিনী পেশায় নিজেকে নিযুক্ত করেন।
পরীক্ষক ১ঃ না, উনি শ্রমিক ছিলাম।
আমি ঃ স্যার সরি, আরজ আলী মাতবর কৃষি কাজই করতেন।
পরীক্ষক ১ঃ তুমি কি ইন্টারনেট থেকে এগুলো পড়ছো?
আমি ঃ না স্যার? প্রফেসর জসীম উদ্দিনের সম্পাদনায় "আরজ আলী রচনা সমগ্র ১ ও ২ থেকে আমি পড়েছি।
পরীক্ষক ১ঃ আরজ আলী কোন ধরনের দার্শনিক ছিলেন?
আমিঃ স্যার উনি বাংলাদেশে বস্তুবাদী দর্শনের প্রবক্তা।
পরীক্ষক ১ঃ কি বলছো তুমি? আমি বলছি উনি নাস্তিক দার্শনিক নাকি আস্তিক দার্শনিক ছিলেন?
আমিঃ প্রচলিত মত অনুসারে আরজ আলী মাতবর নাস্তিক ছিলেন বলে মনে হয়। কিন্তু উনি কোথাও বলেন নি উনি নাস্তিক ছিলেন। উনি বলেছেন প্রচলিত কুসংস্কারবাদী ধর্মের বিরুদ্ধে তার অবস্থান কিন্তু প্রকৃত ধর্মের বিরুদ্ধে নয়।
পরীক্ষক ১ঃ কি বলছো তুমি? তুমি উনার বাড়ি গিয়েছো?
আমি ঃ না স্যার। আমি যাই নি। আমি বই থেকে জেনেছি।
 

আবেদনের শেষ তারিখঃ na

লোকেশনঃ বাংলাদেশ

Source: online